--> রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে কঠোর পদক্ষেপ দরকার: জাতিসংঘের প্রতিনিধি

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে কঠোর পদক্ষেপ দরকার: জাতিসংঘের প্রতিনিধি

 rohinga crisis

Al Jazeera Bangla: জাতিসংঘের একজন বিশেষ প্রতিবেদক বলেছেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উচিত বাংলাদেশের সঙ্গে আরও ভালো অংশীদারিত্ব গড়ে তোলা এবং রোহিঙ্গা শরণার্থী সংকট মোকাবেলায় মিয়ানমারের সামরিক নেতৃত্বকে ছেঁটে ফেলা।

রোববার ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে মিয়ানমারের মানবাধিকার পরিস্থিতি বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ দূত টম অ্যান্ড্রুজ বলেন, “বাংলাদেশ একা এই দায় বহন করতে পারে না এবং করা উচিতও নয়।

“এই সংকটের কারণ এবং এই সংকটের চূড়ান্ত সমাধান এখানে বাংলাদেশে নয়, মিয়ানমারে।”

রোহিঙ্গারা একটি জাতিগত গোষ্ঠী, যাদের মধ্যে ৭,০০,০০০ এরও বেশি শরণার্থী ২০১৭ সালের অগাস্টে প্রতিবেশী মায়ানমারে নিপীড়ন ও সহিংসতা থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছিল৷ তারপর থেকে, বাংলাদেশ তার উপকূলের জনাকীর্ণ শিবিরে প্রায় প্রায় দশ লক্ষ  শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়েছে।

বাংলাদেশের কর্মকর্তারা বলছেন, শরণার্থী সংকট ১৬ কোটিরও বেশি মানুষের জনাকীর্ণ দেশটির জন্য অতিরিক্ত বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এন্ড্রুজ শরণার্থী সংকট পর্যালোচনা রোহিঙ্গা শরণার্থী, আন্তর্জাতিক সাহায্য সংস্থার কর্মকর্তা এবং বাংলাদেশের কর্মকর্তাদের সাথে করতে দেখা করেন।

তিনি বলেন, “মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর উপর চাপ আরোপ করা এবং এই সংকটের জন্য সামরিক জান্তাকে সম্পূর্ণরূপে দায়বদ্ধ রাখার জন্য দৃঢ় পদক্ষেপ সহ এই সংকটের জন্য একটি শক্তিশালী, আরও সমন্বিত আন্তর্জাতিক প্রতিক্রিয়ার জন্য আমি আমার সামর্থ্য অনুযায়ী সবকিছু করব।”

তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে প্রয়োজনে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর আয়ের উৎস বন্ধ করতে হবে। ২০১৮ সালে জাতিসংঘ-স্পন্সর করা একটি তদন্ত দল রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যা, যুদ্ধাপরাধ, সহিংসতা এবং মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধের অভিযোগে মিয়ানমারের শীর্ষ সামরিক কমান্ডারদের বিচারের সুপারিশ করেছিল।

“এটি একটি বৃহৎ সামরিক বাহিনী (মিয়ানমারে) এবং এটি অত্যন্ত শক্তিশালী, কিন্তু বৃহৎ সামরিক বাহিনীর রসদ সরবরাহ ও টিকিয়ে রাখার জন্য উল্লেখযোগ্য সম্পদ নেই। আমি মনে করি যে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এই সামরিক জান্তার কোষাগারে প্রবাহিত আয়ের উত্সগুলি সনাক্ত করতে এবং এই নৃশংসতাকে বন্ধ করার জন্য আরও ভাল কাজ করতে পারে।”

এছাড়াও জাতিসংঘের দূত মূল ভূখণ্ড থেকে প্রায় ৬০ কিলোমিটার  দূরে বন্যা-প্রবণ দ্বীপ ভাসান চরে স্থানান্তরিত শরণার্থীদের সাথেও দেখা করেন।

এই বছরের অক্টোবরে, জাতিসংঘ এবং বাংলাদেশ সরকার রোহিঙ্গা শরণার্থীদের প্রত্যন্ত দ্বীপে স্থানান্তর করতে সহায়তা করার জন্য একসাথে কাজ করার জন্য একটি চুক্তি স্বাক্ষর করে। ১৯,০০০ এরও বেশি রোহিঙ্গাকে ইতিমধ্যে সঙ্কুচিত শিবির থেকে ওই দ্বীপে স্থানান্তরিত করা হয়েছে।

“এই মিশনে আমি, রোহিঙ্গাদের সাথে কথা বলেছি, তারা কুতুপালং ক্যাম্পে হোক বা ভাসানচরে হোক, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তারা স্বেচ্ছায়, নিরাপদে, টেকসই এবং মর্যাদার সাথে স্বদেশে ফিরে যেতে চায়। তারা দেশে ফিরে যেতে চায়,” অ্যান্ড্রুজ বলেন।

তবে তিনি বলেন, মিয়ানমারের সামরিক সরকারের নিজস্ব জনগণের বিরুদ্ধে নিরলস হামলার পাশাপাশি দেশটির রাখাইন রাজ্যে নিয়মতান্ত্রিক ক্লিয়ারেন্স আজ অবধি অব্যাহত রয়েছে।

“এর মানে রোহিঙ্গাদের নিরাপদ এবং টেকসই, মর্যাদাপূর্ণ স্বদেশে প্রত্যাবর্তনের শর্ত বর্তমানে বিদ্যমান নেই। মিয়ানমারে এই ধরনের পরিস্থিতি তৈরি করতে যথেষ্ট সময় এবং উল্লেখযোগ্য প্রচেষ্টা লাগবে, বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

স্কুল বন্ধের বিষয়ে ‘গভীরভাবে উদ্বেগ’

অ্যান্ড্রুস আরও বলেন, বাংলাদেশের রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য স্কুল বন্ধ করার সিদ্ধান্তের ফলে রোহিঙ্গা শিশুদের “পুরো প্রজন্ম কার্যত অশিক্ষিত” থেকে যাওয়ার ঝুঁকি রয়েছে।

বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষ এই সপ্তাহে সীমান্ত শিবিরগুলিতে “অননুমোদিত” শিক্ষা কেন্দ্রগুলি বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে। আদেশটি অ্যান্ড্রুজের সফরের সময় এসেছিল।

তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “আমি এখানে থাকাকালীন একটি নতুন নীতির বিষয়ে জানতে পেরে গভীরভাবে উদ্বিগ্ন, সরকার ক্যাম্পের সমস্ত বেসরকারি স্কুল বন্ধ করে দেবে।”

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে যে, আদেশটি ইউনিসেফ দ্বারা সমর্থিত শিবিরের শিশুদের জন্য প্রায় ৩,০০০ শিক্ষাকেন্দ্রকে প্রভাবিত করবে না। বরং উগ্রপন্থার প্রচার এবং অবৈধ কার্যকলাপে জড়িত স্কুলগুলির কার্যক্রম বন্ধ করার জন্য এটি করা হয়েছে।

শিবিরে ক্ষুব্ধ রোহিঙ্গা কর্মীরা জনবিক্ষোভের পরিবর্তে এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করতে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করছে। কারণ গত সেপ্টেম্বরে রোহিঙ্গা শিবিরের শীর্ষ নেতাকে হত্যার পর নিরাপত্তা জোরদার করায় জনবিক্ষোভ কঠিন হয়ে পড়েছে।

নিউইয়র্ক ভিত্তিক হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বলেছে, বাংলাদেশ যদি এই স্কুল বন্ধের আদেশ প্রত্যাহার না করে তাহলে প্রায় ৩০,০০০ শিশু শিক্ষার সুযোগ হারাবে।


মূল লেখা: (Al Jazeera English) Do more to resolve Rohingya crisis: UN envoy in Bangladesh


নাম

al-jazeera,3,bangladesh,19,important,9,others,2,world,7,
ltr
item
Al Jazeera Bangla Online News - আল জাজিরা বাংলা নিউজ: রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে কঠোর পদক্ষেপ দরকার: জাতিসংঘের প্রতিনিধি
রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে কঠোর পদক্ষেপ দরকার: জাতিসংঘের প্রতিনিধি
মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর উপর চাপ আরোপ করা এবং এই সংকটের জন্য সামরিক জান্তাকে সম্পূর্ণরূপে দায়বদ্ধ রাখার জন্য দৃঢ় পদক্ষেপ সহ এই সংকটের জন্য একটি শক
https://blogger.googleusercontent.com/img/a/AVvXsEjR8nFUgtrS_Ajuxk9Aq5IL-j38VAc9dlAeJSaE-c4PSyjvf_XYu7Txi3Mq3_tbkVLv0WEI5V4ySzbMJC1K96F6kdGBz0CSmyZWZx_izV3OcI6R2e0lHxK8DVXEMIwqMEYIsFT58eoiqC-HBntvdZ85rfBGeXyWScxWgBS_szkIJkFSwf0l5w4gJpvO=w320-h162
https://blogger.googleusercontent.com/img/a/AVvXsEjR8nFUgtrS_Ajuxk9Aq5IL-j38VAc9dlAeJSaE-c4PSyjvf_XYu7Txi3Mq3_tbkVLv0WEI5V4ySzbMJC1K96F6kdGBz0CSmyZWZx_izV3OcI6R2e0lHxK8DVXEMIwqMEYIsFT58eoiqC-HBntvdZ85rfBGeXyWScxWgBS_szkIJkFSwf0l5w4gJpvO=s72-w320-c-h162
Al Jazeera Bangla Online News - আল জাজিরা বাংলা নিউজ
https://bangla.al-jazeera.xyz/2021/12/rohingya-crisis-un-envoy-bangladesh.html
https://bangla.al-jazeera.xyz/
https://bangla.al-jazeera.xyz/
https://bangla.al-jazeera.xyz/2021/12/rohingya-crisis-un-envoy-bangladesh.html
true
8943782346888826352
UTF-8
Loaded All Posts খুঁজে পাওয়া যায়নি সব দেখুন বিস্তারিত জবাব জবাব বাতিল ডিলিট By হোম পাতা সমূহ পোস্টগুলি সব দেখুন আপনার জন্য নির্বাচিত বিষয় সংরক্ষণাগার সার্চ সকল পোস্ট Not found any post match with your request Back Home রবিবার সোমবার মঙ্গলবার বুধবার বৃহস্পতিবার শুক্রবার শনিবার রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহঃ শুক্র শনি জানুয়ারি ফেব্রুয়ারি মার্চ এপ্রিল মে জুন জুলাই আগস্ট সেপ্টেম্বর অক্টোবর নভেম্বর ডিসেম্বর জানু ফেব মার্চ এপ্রিল মে জুন জুলাই আগস্ট সেপ্টঃ অক্টোঃ নভেঃ ডিসেঃ এই মাত্র 1 minute ago $$1$$ minutes ago 1 ঘণ্টা আগে $$1$$ hours ago গতকাল $$1$$ days ago $$1$$ weeks ago more than 5 weeks ago ফোলোয়ারস ফোলো করুন THIS PREMIUM CONTENT IS LOCKED STEP 1: Share to a social network STEP 2: Click the link on your social network Copy All Code Select All Code All codes were copied to your clipboard Can not copy the codes / texts, please press [CTRL]+[C] (or CMD+C with Mac) to copy Table of Content